১২ এপ্রিল, ২০২১, ২৯ চৈত্র, ১৪২৭
শিরোনাম :
করোনাকালীন সম্মুখযোদ্ধা বদিউল আলম সুজনকে সম্মাননা প্রদান চৌদ্দগ্রামে গৃহ কৃষণের সন্ধানে-২০২০ এর পুরস্কার বিতরণ চৌদ্দগ্রামে মৎস্য উপকরণ বিতরণ চৌদ্দগ্রামে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যাত্রীবেশে ডাকাতির সময় আটক ৩ রংধনু ক্লাবের উদ্যোগে কাজী এনামুল হককে ফুলেল শুভেচছা রংধনু ক্লাবের উদ্যোগে সাংবাদিক এমদাদ উল্লাহকে সংবর্ধনা প্রদান চৌদ্দগ্রামে দ্রুতগামী গাড়ীর চাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহি নিহত নিজে দূর্নীতি করি না, কাউকে দুর্ণীতি করতেও দিব না- নবাগত জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান বৈদ্দ্যেরখিল জনকল্যান ক্লাবের ফ্রিজ ও এলইডি কাপের সেমিফাইনালে আর্ট গ্যালারী পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন সাংবাদিক এমদাদ উল্যাহ

চৌদ্দগ্রামে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যাত্রীবেশে ডাকাতির সময় আটক ৩

স্টাফ রিপোর্টার: ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম অংশে হাইয়েস মাইক্রোবাসে যাত্রীবেশে ডাকাতি করার সময় তিন ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলো: নেত্রকোনা জেলার ফকিরহাটের নোয়াপাড়া গ্রামের মৃত আবদুল মালেকের ছেলে আল-আমিন (৩৮), আবদুল হাকিমের ছেলে মনির হোসেন (৩০) ও একই জেলার মোহনগঞ্জ থানার বসন্তীয়া গ্রামের আবদুল কুদ্দুসের ছেলে পলাশ (৩৯)। এঘটনায় যাত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্চারামপুর থানার দড়িকান্তি গ্রামের শামছুল হকের ছেলে নূর হোসেন বাদি হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ডাকাতদের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) দুপুরে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন থানার অফিসার ইনচার্জ শুভ রঞ্জন চাকমা।

মামলা সূত্রে জানা যায়, নূর হোসেন ও তার বন্ধু তারেক হোসেন সোমবার রাত সাড়ে আটটায় ঢাকায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে মিয়াবাজারে অবস্থান করে। কিছুক্ষণের মধ্যে একটি সাদা রঙের হাইয়েস (ঢাকা মেট্রো-চ-১৫-৩৬৩৮) তাদের সামনে গিয়ে দাঁড়ায়। ড্রাইভার তাদেরকে ঢাকায় যাবে কি না জিজ্ঞেস করলে তারা ঢাকার উদ্দেশ্যে গাড়িতে উঠে বসে। আগে থেকেই গাড়ির পিছনের সিটে ৫-৬ জন যাত্রী ছিল। গাড়িতে উঠার কিছু সময় পরে নূর হোসেন ও তার বন্ধু তারেক হোসেনকে গামছা দিয়ে হাত ও চোখ বেঁধে মারধর শুরু করে। এরপর তাদের সাথে থাকা নগদ ২১ হাজার টাকা ও মোবাইল সেট নিয়ে যায়। ড্রাইভার হোটেল নূর জাহানের সামনে গাড়ি ইউটার্ণ করে আবার চট্টগ্রামের দিকে চালাতে থাকে। এক পর্যায়ে নূর হোসেন ও তারেক হোসেনকে প্রাণে হত্যা করার হুমকি দিয়ে বিকাশের মাধ্যমে ৫৪ হাজার টাকা আনতে বাধ্য করে। মাইক্রোবাসের গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে রাতে কর্তব্যরত থানা পুলিশের একটি টিম ধাওয়া করে গাংরা রাস্তার মাথায় মাইক্রোবাসটিকে ব্যারিকেড দেয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গাড়িতে থাকা ডাকাতরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় পুলিশ আল-আমিন ও মনির হোসেনকে আটক করতে সক্ষম হয়। পরে আটককৃতদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক ঢাকার জুরাইনের কদমতলী এলাকা থেকে পলাশকেও আটক করতে সক্ষম হয়।

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন, ‘পুলিশ সুপারের নির্দেশে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কসহ উপজেলার বিভিন্নস্থানে অপরাধ নিয়ন্ত্রণে আমরা সক্রিয় রয়েছি। এরই অংশ হিসেবে সোমবার রাতে তাৎক্ষণিক তিন ডাকাতকে আটক করা সম্ভব হয়েছে’।

আলোকিত চৌদ্দগ্রাম পরিবার

মো. এমরান হোসেন বাপ্পি

নির্বাহী সম্পাদক
মোবাইল: ০১৮১৯ ৯৯৬২৩৮

মো. বেলাল হোসাইন

বার্তা সম্পাদক
মোবাইল: ০১৮১৩ ০৬৫৭২৮

মুহা. ফখরুদ্দীন ইমন

প্রধান প্রতিবেদক
মোবাইল: ০১৮১৯ ৭৮৬০১২