২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬ আশ্বিন, ১৪২৮

চৌদ্দগ্রামের ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশু তানহা বাঁচতে চায়

মো : বেলাল হোসাইনঃ মাত্র ৪ বছর ৯মাসের শিশু আলিশা আদনিন তানহা। পিতা-মাতার অত্যন্ত আদরের সন্তান। দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে অন্যান্য শিশুদের মতো খেলাধুলার বদলে তার দিন কাটে হাসপাতালের বেডে। জটিল এ রোগে আক্রান্ত হলেও এখনো বুঝতে পারেনি সে। অন্যান্য শিশুদের মতো শিশু হাসপাতালের ৬নং বেডেই খেলাধুলায় মেতে উঠে। কথা বলে ৮-১০টি শিশুর মতো স্বাভাবিকভাবে। এদিকে ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশু তানহা দীর্ঘ চিকিৎসা চালাতে গিয়ে তার পরিবারও প্রায় নিঃস্ব। দীর্ঘ দেড় বছর ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীণ থাকায় ইতিমধ্যেই তানিশার চিকিৎসায় লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয় হয়েছে পরিবারের। শুরুতে ক্যান্সার শনাক্ত না হওয়ায় ভালো হওয়ার আশায় পরিবার প্রথমে বে-সরকারী হাসপাতালে ও পরবর্তীতে ঢাকা শিশু হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়। পরবর্তীতে ব্ল্যাড ক্যান্সার শনাক্ত হলে শিশুটিতে বাড়ি নিয়ে আসে পরিবার। বর্তমানে শিশু তানহাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাশ^বর্তী ভারতে নেওয়ার পরামর্শ প্রদান করেছেন ঢাকা শিশু হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ ডাক্তারগণ। এজন্য অন্তত পনের লক্ষ টাকার প্রয়োজন। তানহার পিতা সামান্য মোবাইল মেকানিক। যা সংগ্রহ করা নিম্ন মধ্যবিত্ত ও একমাত্র উপার্জনক্ষম পিতার পক্ষে একেবারেই অসম্ভব।


তানহার বাবা উপজেলার মুন্সীরহাট ইউনিয়নের ফেলনা গ্রামের নজির আহাম্মদ জানান, তানহা জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ায় তাকে প্রথমে বিভিন্ন বে-সরকারী হাসপাতালে এবং পরবর্তীতে ঢাকা শিশু হাসপাতালে ভর্তি রাখি। এসময় জমানো এবং আত্নীয় স্বজন থেকে নেওয়া সকল টাকাই খরচ হয়ে যায়। কিছুদিন পূর্বে তার ক্যান্সার শনাক্ত হয়। শিশু হাসপাতালের ডাক্তারদের পরামর্শেই ভারতে নিয়ে চিকিৎসার উদ্যোগ গ্রহণ করি। নিজের নিকট টাকা পয়সা না থাকলেও এলাকাবাসীর সহযোগীতা ও ভালোবাসার আশায় আদরের শিশু কন্যাটিকে ভারতে নিয়ে চিকিৎসার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রবাসী ও চৌদ্দগ্রামবাসীর সহযোগীতা পেলে এবং আল্লাহ রহমত করলে হয়তো আমার প্রাণপ্রিয় শিশুকন্যাকে আবারো স্বাভাবিক জীবনে দেখতে পাবো।


ফেলনা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার আব্দুল মান্নান জানান, ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশুটিকে যে কেউ দেখলেই মায়ার জালে আবদ্ধ হবে। ছোট্ট এই শিশুটি আজ আমার কিংবা আপনার মেয়েও হতে পারতো। তাই অন্যের মেয়ে না ভেবে নিজের মেয়ের মতো দেখে শিশুটির চিকিৎসায় প্রবাসীসহ সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।


তানহার চিকিৎসায় সহযোগীতা পাঠানোর ঠিকানা ঃ মোঃ শাখাওয়াত হোসেন, সেভিং একাউন্ট নং- ০৩৪১১১০০১৭০৭৬, ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেড, মুন্সীরহাট বাজার শাখা, চৌদ্দগ্রাম, কুমিল্লা। অথবা, বিকাশ পারসোনাল- ০১৮৭১৩৫০৩৫৪।

আলোকিত চৌদ্দগ্রাম পরিবার

মো. এমরান হোসেন বাপ্পি

নির্বাহী সম্পাদক
মোবাইল: ০১৮১৯ ৯৯৬২৩৮

মো. বেলাল হোসাইন

বার্তা সম্পাদক
মোবাইল: ০১৮১৩ ০৬৫৭২৮

মুহা. ফখরুদ্দীন ইমন

প্রধান প্রতিবেদক
মোবাইল: ০১৮১৯ ৭৮৬০১২